Eat pomegranates throughout the year.

in r2cornell •  2 months ago 

ASSALAMUALIKUM OA
ROHMATULL

Hello..!!
My Dear Blurt,
I am @ranna001 from Bangladesh

Assalamu Alaikum come and you all are fine. By God's grace I am fine too. Today, I will share with you about eating pomegranates throughout the year.

Eat pomegranates throughout the year.

1626356368_3.jpg

source

Pomegranate is a very popular fruit of rural Bengal. Pomegranate trees can be seen in the yard of every residential house everywhere in Bangladesh. The fruit of the small tree is called pomegranate. In some regions, this fruit is also called Bedana. This fruit is available throughout the year. It is mainly produced in Rajshahi, Chapainawabganj, Natore, Dinajpur, Thakurgaon and Rangpur districts of Bangladesh. Pomegranate is very beneficial for people of all ages. After removing the shell of the spherical fruit, the seeds filled with reddish juice are eaten. There is no end to the properties of pomegranate to keep the body healthy and beautiful. Fruits, leaves, bark, roots are all used medicinally. Pomegranate is a very nutritious fruit. Vitamin B, C, sugars, calcium, phosphorus are available in abundance in it. The fruit is very beneficial in constipation, dysentery, stomach ailments, dyspnea, cough and rheumatism. Pomegranate juice increases intelligence and blood and cures chest pain and palpitations. Pomegranate juice is very effective in jaundice. Moreover, it increases the taste of eating by removing the unpleasantness of the mouth. Clears the voice. Pomegranate is very beneficial for the heart. The English name of this beneficial fruit is Pomegranate.

Chemical constituents: Leaves contain betulic and arsenic acids, beta-sitosterol. Stem bark contains : D-mannitol, oxime, friedelin, pellitierin. The pericarp of the fruit contains: tannin, ellagic, citric acid and arsenic acid. Root contains: pellitierine, pseudo, pellitierine, isopellitierine, methyl, peritierine.

The nutritional content of pomegranate per 100 grams of food is as follows:
Nutritional value 65 kcal, sugar 14.5 g, calcium 10 mg, vitamin C 14 mg, phosphorus 70 mg, protein 1.6 mg, fat 0.1 mg, iron 0.3 mg, vitamin B-1 0.06 mg, B-2 0.1 mg, Niacin 0.3 mg. Apples are very beneficial for teeth and bones. The result of having vitamin C increases the beauty of the skin thus preventing skin diseases and improving the beauty of hair. Moreover, it has various medicinal properties such as:

Adipolo

  • If you have fever, chew pomegranate juice and body heat will decrease. If there is colic, phlegm and abdominal air will be destroyed.

  • Those who are suffering from heart disease or heart weakness will benefit greatly by mixing 3/4 teaspoon of pomegranate juice with 2 teaspoons of aloe vera. Moreover, those who sleep less at night will also benefit.

  • Women who get pregnant frequently cannot give birth to children. These women take a teaspoon of pomegranate leaf juice, add half a teaspoon of white-sandalwood and a few drops of honey and boil it well with a small amount of curd to prevent pregnancy.

  • Those who have stomach digestion problems take 3-4 teaspoons of pomegranate juice and mix it with old sugarcane molasses and eat it 2 times a day. Indigestion will be cured.

  • When children's liver is big, take 2-3 teaspoons of dry bark of pomegranate tree and mix it with 2 spoons of milk and a little honey and feed it. You will benefit.

  • Pomegranate is rich in antioxidants which help in controlling blood cholesterol. * Pomegranate plays a special role in preventing skin cancer.

  • If you have nausea, mix pomegranate juice and honey and get benefit.

  • Those who suffer from dysentery for a long time should boil pomegranate bark and pomegranate peel with cloves (long) and drink that water for a few days. You will benefit greatly. Also the worm will die. Strength will increase, stomach ailments will be especially beneficial.

  • Those suffering from diabetes should crush the fruit peel and soak it in water. Black water will come out. Drink that water every morning to control diabetes.

  • People with watery nose should mix pomegranate juice with Durbaghas juice and eat it, they will get benefit.

Caution: Consuming large amounts of root juice may cause poisoning.
Plant this beneficial plant around the house as much as possible. Come forward to meet the nutritional needs of the family.

গ্রাম বাংলার অতি পরিচিতি একটি ফল ডালিম। বাংলাদেশের সর্বত্রই প্রতিটি বসত বাড়ির আঙ্গিনায় ডালিম গাছ দেখা যায়। ছোট আকারের গাছটির ফলের নাম ডালিম। এ ফলকে কোনো কোনো অঞ্চলে বেদানা আবার কেউ আনারও বলে। এ ফলটি সারা বছরই পাওয়া যায়। এটি বাংলাদেশের মধ্যে রাজশাহী, চাপাইনবাবগঞ্জ, নাটোর, দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও এবং রংপুর জেলায় ডালিম বেশি উৎপন্ন হয়। সব বয়সের সব মানুষের জন্য ডালিম খুবই উপকারী। গোলাকৃতির ফলটির বাকল ছাড়ালে ভিতরে লালচে রসে ভরা দানাগুলো খাওয়া হয়। শরীর সুস্থ ও সুন্দর রাখতে ডালিমের গুণের শেষ নেই। ফল, গাছের পাতা, ছাল, মূল সবই ঔষধি হিসেবে ব্যবহার করা হয়। অত্যন্ত পুষ্টি সমৃদ্ধ ফল ডালিম। এতে ভিটামিন বি, সি, শর্করা, ক্যালসিয়াম, ফসফরাস প্রচুর পরিমাণে পাওয়া যায়। ফলটি কৈাষ্ঠ্যকাঠিন্য, আমাশয়, পেটের অসুখ, শ্বাসকষ্ট, কাশি ও বাত ব্যাধিতে খুবই উপকার সাধন করে। ডালিমের রস মেধা ও রক্ত বৃদ্ধি করে এবং বুকের ব্যথা ও বুক ধড়ফড়ানি সেরে যায়। ডালিমের রস জন্ডিস রোগে বেশ কার্যকর। তাছাড়া মুখের অরুচি দূরে করে খাওয়ার রুচি বাড়ায়। কণ্ঠস্বর পরিষ্কার করে। হার্টের জন্য ডালিম খুবই উপকারী। উপকারী এ ফলটির ইংরেজি নাম পোমেগ্রেনেট।

রাসায়নিক উপাদান : পাতায় থাকে বেটুলিক এবং আরসোলিক এসিড, বিটা সিটোস্টেরল। কান্ডের বাকলে থাকে : ডি ম্যানিটল, অক্সিম, ফ্রিয়েডেলিন, পেলিটিয়েরিন। ফলের পেরিকার্পে (বাকলে) থাকে : ট্যানিন, এলাজিক, সাইট্রিক এসিড এবং আরসোলিক এসিড। মূলে থাকে : পেলিটিয়েরিন, সিউডো, পেলিটিয়েরিন, আইসোপেলিটিয়েরিন, মিথাইল, পেরিটিয়েরিন।

প্রতি ১০০ গ্রাম খাবার উপযোগী ডালিমে খাদ্য উপাদান নিম্নরূপ :
খাদ্যশক্তি ৬৫ কিলোক্যালরি, শর্করা ১৪.৫ গ্রাম, ক্যালসিয়াম ১০ মিলিগ্রাম, ভিটামিন সি ১৪ মিলিগ্রাম, ফসফরাস ৭০ মিলিগ্রাম, প্রোটিন ১.৬ মিলিগ্রাম, চর্বি ০.১ মিলিগ্রাম, আয়রন ০.৩ মিলিগ্রাম, ভিটামিন বি-১ ০.০৬ মিলিগ্রাম, বি-২ ০.১ মিলিগ্রাম, নিয়াসিন ০.৩ মিলিগ্রাম। এফলটি দাঁত ও হাড়ের জন্য বেশ উপকারি। ভিটামিন সি থাকার ফলটি চামড়ার সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে তাই চর্ম রোগ প্রতিরোধ ও চুলের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে। তাছাড়া নানা ঔষধি গুণাগুণ রয়েছে তা নিস্নরূপ :

Adipolo

  • জ্বর হলে ডালিমের রস চিবিয়ে খান শরীরের তাপ কমে আসবে। কামি থাকলে কফ ও পেটের বায়ু নাশ হবে।

  • যারা হৃদরোগে বা হার্টের দুর্বলতায় ভোগছেন তারা ৩/৪ চামচ ডালিমের রসের সাথে ২ চা-চামচ ঘৃতকুমারী শাঁস মিশিয়ে খান খুবই উপকার পাবেন। তাছাড়া যাদের রাতে ঘুম কম হয় তাদেরও উপকার আসবে।

  • যে সব স্ত্রী লোকের ঘনঘন গর্ভাব হয় তারা সন্তান জন্ম দিতে পারে না। এসব মহিলারা ডালিম গাছের পাতা বেটে এক চা চামচ রস নিয়ে তাতে শ্বেত-চন্দনের আধা চা-চামচ ও কয়েক ফোঁটা মধু মিশিয়ে তাতে অল্প পরিমাণে দই নিয়ে ভালো করে ফুটিয়ে খেলে গর্ভাব বন্ধ হতে পারে।

  • যাদের পেটে খাবার হজমে সমস্যা হয় তারা ৩-৪ চা-চামচ ডালিমের রস নিয়ে তাতে পুরাতন আখের গুড় মিশিয়ে দিনে ২ বার খান। অ¤øজনিত অজীর্ণ আরোগ্য হবে।

  • শিশুদের লিভার বড় হয়ে গেলে তাতে ডালিম গাছের মূলের শুকনা ছাল গুড়ো করে ২-৩ চা-চামচ নিয়ে তাতে ২ চামচ দুধ ও সামান্য মধু মিশিয়ে খাওয়ান। উপকার পাবেন।

  • ডালিমে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট থাকে যা রক্তের কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। * চামড়ার ক্যান্সার প্রতিরোধ করে ডালিম বিশেষ ভূমিকা পালন করে।

  • বমি বমি ভাব থাকলে ডালিমের রস ও মধু মিশিয়ে খান উপকার পাবেন।

  • যারা বহু দিন ধরে আমাশয়ে ভোগছেন তারা ডালিম গাছের ছাল ও ডালিমের খোসা লবঙ্গের (লং) এর সাথে ফুটিয়ে সেই পানি কয়েকদিন খান। খুবই উপকার পাবেন। তাছাড়া কৃমি মরে যাবে। বলবৃদ্ধি পাবে, পেটের অসুখের বিশেষ উপকার হবে।

  • যারা ডায়াবেটিসে ভোগছেন তারা ফলের খোসা থেঁতো করে পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। কালো পানি বের হবে। সেই পানি ছেকে প্রতিদিন সকালে খান ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে আসবে।

  • যাদের নাক দিয়ে পানি পড়ে তারা ডালিমের রসের সাথে দুর্বাঘাসের রস মিশিয়ে খান, উপকার পাবেন।

সতর্কতা : বেশি পরিমাণে শিকড়ের রস খেলে বিষক্রিয়া হতে পারে।
এই উপকারী গাছটি বাড়ির আশে-পাশে লাগান যতœ নিন। পরিবারের পুষ্টি চাহিদা পূরণে এগিয়ে আসুন।

Thanks for reading my post.
@ranna001

Authors get paid when people like you upvote their post.
If you enjoyed what you read here, create your account today and start earning FREE BLURT!
Sort Order:  


** Your post has been upvoted (1.52 %) **